আইসিসি তার আম্পায়াদের নিয়ে এখন কি করে সেটাই দেখার বিষয়। তাদের ওপর অর্ডার ছিলো বাংলাদেশকে ‘‌দাবাতে‌’ হবে। কিন্তু বাজিকরদের ‘আন-অফিসিয়াল’ এই নির্দেশনা কি শুধু আম্পায়ারেরাই পালন করেছে? বাজিকরদের হাত কতদুর লম্বা? বেটিং মার্কেটে এই খেলাকে ঘিরে কতো বিলিয়ন ডলার হাতবদল হয়েছে, কারো কাছে কি হদিস আছে?

খেলার মাঠে ক্রমাগত ইন্ডিয়ার জয়ের ভবিষ্যৎবাণী করে ইলেকট্রনিক ব্যানার প্রদর্শনের যে মচ্ছব চলেছিলো, সে বিষয়েও মেলবোর্নের স্টেডিয়ামে দায়ী ব্যাক্তি/কর্তৃপক্ষকে তদন্তের অধীনে আনা দরকার।

আইসিসি‌‘র নামে অনেক কেলেঙ্কারীর ইতিহাস আছে, এবারেরটা সবচেয়ে জঘন্য।

একটা উদীয়মান দেশকে বড়ো প্রতিষ্ঠিত আরেকটা দেশের খাতিরে উঠতে না দেয়া, ‘দাবায়ে’ রাখা অপরাধ।

 

উৎস

(93)