একটা মজার কান্ড হয়েছে!

গত দু’দিন ধরে বাজারে একটা খবর ভেসে বেড়াচ্ছে, ফেসবুকরাজ মার্ক ঝুকারবার্গ নাকি ফেসবুকে নাস্তিকতা, এথিইজম ইত্যাদি বিষয় সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ ঘোষনা করেছে। এবং সম্পর্কিত সমস্ত পেজ, একাউন্ট মুছে ফেলে ফেসবুককে নূরাণী খোমাকিতাবে রূপান্তর করে ফেলবে।

আমাদের হাঁটু বুদ্ধির মুমিনগন ঈদের আনন্দে উদ্বেল হয়ে সামষ্টিক বগল বাজাতে বাজাতে সেই ভুয়া খবর ছড়াতে ছিটাতে থাকলো।

এদিকে দুর্বল হৃদয়ের নাস্তিকেরা ভুয়া খবর পড়ে এমনি হাঁটু কাঁপাকাঁপি লাগিয়ে দিলো, যে আমাকে এই পোস্ট লিখতে বসতে হলো…

যা হোক, ভায়েরা এবং বুনেরা, ছিন্তা ন গইজ্যেন।

উহা একটি ‘স্যাটায়ার’ ওরফে ব্যাঙ্গ সংবাদ। প্লিজ, আপনাদের প্যান্টের জিপার বন্ধ করেন। আপনাদের ঈদ আনন্দময় করতে এই ভূয়া খবর নাস্তিকেরাই ছড়িয়েছিলো। আপনাদের বেকুব উল্লাস দেখে আমরাও বেশ মজা পেয়েছি।

কি বলেন? এখনো বিশ্বাস হচ্ছে না আমার কথা!!

ঠিক আছে, এবার জটিল বিষয়ে আসুন, যদি মাথায় ধরে আর কি..  😆

যে ওয়েবসাইটের সূত্র ধরে আপনাদের এতো আনন্দ… সেটা কি এটা?

false or true

যদি তাই হয়, তাহলে উত্তেজনা এবার সংবরন করুন… কারন IFLScience এর ORG এড্রেস থেকে যে খবরটা পড়েছেন, ওটা পুরোটাই ভুয়া।

কারন I fucking Love Science এর .COM সাইটটা হলো সত্যিকারের সাইট, যার ফেসবুক পেজ মিলিয়নের ওপরে ফলোয়ার। সেখান থেকে কিন্তু এই ‘নিউজ’টা আসে নাই।

এবার নিচের স্ক্রীনশট দেখুন দুইটা সাইটের..


 

এটা সঠিক সাইট.. তাদের হোমপেজ দেখুন.. 

ifl science


এবং ফেসবুক পেজ… ফলোয়ারের সংখ্যা দেখুন..

২৫ মিলিয়ন…. বিজ্ঞাণ আমি কুত্তার মতো ভালোবাসি!  🙂 

ifl science FB


আর এটা হলো ভুয়া সাইটের স্ক্রীনশট.. 

ifl scienceORG


লোগোর পার্থক্য দেখুন খেয়াল করে … দুই রকম.. 

ifl com vs org

 


 

কাজে কাজেই… আমাদের মগজ শানিত করিতে হইবে, চক্ষু খুলিতে হইবে। চিলে কান নিয়াছে শুনিয়া কাল্পনিক চিলের পেছনে দৌড়ানো বন্ধ করিতে হইবে।

নাস্তিক চিন্তাভাবনা, কার্যক্রম সহসা বন্ধ হইতেছে না জনাব। 

 

যেখানে ২৩% জনগোষ্ঠী সেকুলার চিন্তাধারার, সেখানে রাজাধিরাজ ঝুকারবার্গকে তো পাগলে কামড়ায় নাই যে তিনি এথিস্টিক কথাবার্তা ব্যান করবেন।   😆

আরিফুর রহমান

লন্ডন, যুক্তরাজ্য

২০ জুলাই, ২০১৫

(718)